পা ঠিক হয়ে গিয়েছে, তাহলে কি প্লাস্টার খোলা হবে এবার? জল্পনা তুঙ্গে

0

কলকাতা: ঠিক হয়ে গিয়েছে পায়ের চোট। বহরমপুরের ভার্চুয়াল সভায় নিজেই জানিয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তা সত্ত্বেও হুইল চেয়ারেই প্লাস্টার বাঁধা পা নিয়ে ঘুরেছেন তৃণমূল সু্প্রিমো! একুশের ভোটযুদ্ধে অন্যতম আলোচিত বিষয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চোট। ১০ মার্চ নন্দীগ্রাম কেন্দ্রে নিজের মনোনয়ন দিয়ে ফেরার পথে বাঁ পায়ে চোট পেয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তারপর সেই আঘাতকে কেন্দ্র করে রাজ্য রাজনীতিতে অনেক দূর জল গড়িয়েছে। চোটের কারণে ভোটপ্রচারে প্রভাব পড়তে দেননি তৃণমূল নেত্রী।

গত দেড় মাসেরও বেশি সময় হুইল চেয়ারে করেই রাজ্যের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত ছুটে বেরিয়েছেন। প্লাস্টার বাঁধা পায়েই জনসভা থেকে রোডশোয়ে দেখা মিলেছে নেত্রীর। চোটের কথা উঠতে এদিন নিজেই জানালেন, ঠিক হয়ে গিয়েছে পা। এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সভা চলাকালীন প্রসঙ্গ ওঠায় তিনি বলেন,’পায়ে চোট থাকা সত্ত্বেও এক মাস ২০-২২ দিন আমি কিন্তু রাস্তায় ঘুরে ঘুরে বেরিয়েছি। এখন আমার পা-টা ভালো হয়ে গিয়েছে। কিন্তু যেহেতু বাড়িতে যেতে পারছি না, তাই প্লাস্টার কাটতে পারছি না। যেহেতু টানা ১০ দিন বাইরে আছি। বাড়ি ফিরেই এটা করতে হবে।’

১০ মার্চ নন্দীগ্রামে মনোনয়ন জমা দিয়ে ফেরার পথে বিরুলিয়া বাজারে আহত হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিযোগ করেন, ৪-৫ জন তাঁকে ঠেলে তাঁর পায়ে ইচ্ছাকৃতভাবে চেপে দরজা বন্ধ করে দিয়েছে। তৃণমূল সুপ্রিমোর এই অভিযোগে উত্তাল হয় রাজ্য রাজনীতি। অভিযোগ জমা পড়লেও তদন্তের পর তা খারিজ করে দেয় নির্বাচন কমিশন। পায়ের চোট নিয়ে কম কটাক্ষ করেননি বিরোধীরা। বিরোধীরা অবশ্য বলেন, পুরোটাই তার সাজানো নাটক। উনি শুধু নাটকই করতে পারেন।

এখন সবার প্রশ্ন একটাই? তাহলে কি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পায়ের প্লাস্টার খোলা হয়েছে? ভোট তো শেষ। ভোট গণনা শুরু হয়ে গিয়েছে। 2মে ফল প্রকাশ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায় জয়ের সুর শোনা যাচ্ছে। তাহলে কি এবার প্লাস্টার কেটে নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে সেই জয়ে শামিল হবে? নাকি উইলচেয়ারেই খেলা দেখাবে? অবশ্য বিরোধীরা তাকে হুইল চেয়ারে বসেই তার বিদায়ের প্রহর গুনতে বলছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here