অভিনব: কোভিড- ১৯ রোগী শনাক্তকরণে এগিয়ে সারমেয়রা

0

প্যারিস: করোনা ভাইরাস সংক্রমণে লড়ছে প্রায় গোটা বিশ্ব। সবচেয়ে জরুরি করোনার উপসর্গ দেখা দিলে তা শনাক্ত করা। কখনও কখনও দেখা গিয়েছে যে, রোগীর তেমন উপসর্গ দেখা না দিলেও ভাইরাস মারাত্মক ভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এবার ফ্রান্সের একদল গবেষক কোভিড -১৯ শনাক্তকরণের বিকল্প হিসাবে সারমেয়দের বেছে নিলেন। তারা দেখেছেন যে এই প্রাণীগুলি করোনার  উপস্থিতি শনাক্ত করতে পারে। প্যারিসের বাইরে ন্যাশনাল ভেটেরিনারি স্কুল অফ অ্যালফর্টের গবেষকরা করোনা ভাইরাস সংক্রামিত লোকদের শনাক্ত করতে আটটি বেলজিয়ামের মালিনোইস শেপার্ড সারমেয়কে প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন।

গবেষকরা ৩৬০-এর বেশি লোকের বগলে গন্ধযুক্ত নমুনা ব্যবহার করেছে, যারা ভাইরাসের জন্য ইতিবাচক এবং নেতিবাচক উভয়ই ছিলেন। সারমেয়গুলি তাদের কয়েক জনের মধ্যে কোভিড -১৯-এর উপস্থিতি শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছিল এবং তাদের সামগ্রিক সাফল্যের হার ছিল ৯৫%। গবেষণাপত্রে গবেষকরা বলেছেন যে, পরীক্ষার আগে ইচ্ছুক অংশগ্রহণকারীদের কুকুর ওল্যাকটিভ শনাক্তকরণ একটি সস্তা, দ্রুত এবং নির্ভরযোগ্য “পদ্ধতি” ছিল। এটি জরুরি পরিস্থিতিতে একটি দ্রুত চেক করার বিকল্প হতে পারে।

সমীক্ষা প্রমাণ করে যে প্রশিক্ষিত সারমেয় দ্বারা কোভিড- ১৯ সংক্রামিত ব্যক্তির অ্যাক্সিলারি ঘাম শনাক্ত করা যায়। পরবর্তী পদক্ষেপটি হল একই সারমেয়ের সাথে একটি বৈধতা অধ্যয়ন করা যা শনাক্তকরণের সংবেদনশীলতা এবং স্বাতন্ত্র্য সরবরাহ করবে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। সারমেয়দের সমস্ত ট্রায়ালের পরে আরও স্পষ্টভাবে তাদের আচরণের পরীক্ষা করা হয়েছে। গবেষকরা বলেছেন সারমেয়দের ব্যবহার করা নতুন কিছু নয়। এর আগে ১৯৮৯ সালে একটি ম্যালিগন্যান্ট টিউমার শনাক্ত করতে ব্যবহার করা হয়েছিল সারমেয়কে।