জোরালো ধাক্কা: পাকিস্তানকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দিতে অস্বীকার করল জার্মানি

0

ইসলামাবাদ: যতই গলাবাজি করুক না কেন আন্তর্জাতিক মহলে একের পর ধাক্কা খাচ্ছে পাকিস্তান। এর পিছনে অবশ্যই রয়েছে সন্ত্রাসবাদকে মদত দেওয়ার কারণ। সম্প্রতি সৌদি আরব ইমরান খানের সঙ্গ ছেড়েছে। এবার মুখ ফেরাল জার্মানিও। ইমরান খান জার্মানির কাছ থেকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কিনতে চেয়ে আবেদন করেছিল। কিন্তু চান্সেলার অ্যাঞ্জেলা মর্কেলের নেতৃত্বাধীন কমিটি ইমরানের সেই আবেদন নাকোচ করে জানিয়ে দিয়েছে পাকিস্তানকে কোনও প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দেবে না জার্মানি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক আধিকারিক জানিয়েছেন, চ্যান্সেলর মের্কেলের নেতৃত্বাধীন জার্মান ফেডারেল সিকিউরিটি কাউন্সিলের গৃহীত সিদ্ধান্তটি ৬ আগস্ট পাকিস্তান দূতাবাসে পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল। জানা গিয়েছে পাকিস্তান এয়ার ইন্ডিপেন্ডেন্ট প্রোপালশন সিস্টেম (AIP) অ্যাক্সেসের জন্য অনুরোধ করেছিল। AIP এর মাধ্যমে সাবমেরিন জলের তলায় থাকাকালীন ব্যাটারি চার্জ করতে পারে এবং দীর্ঘকাল ধরে ডুবে থাকে পারে। বলা ভালো যে AIP থাকা সাবমেরিনগুলি সাধারন সাবমেরিনের তুলনায় কয়েক সপ্তাহ বেশি জলের তলায় থাকতে সক্ষম। তবে যাই হোক না কেন পাকিস্তানের সেই আর্জি খারিজ করে দিয়েছে পাকিস্তান।

দিল্লিতে পাকিস্তান পর্যবেক্ষকরা বলেছিলেন যে পাকিস্তানের অনুরোধের প্রতি জার্মানি কঠোর অবস্থান নেওয়ার প্রাথমিক কারণটি হল সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়া। বিশেষত ২০১৭ সালের মে মাসে কাবুলে জার্মানি দূতাবাসে ট্রাক বোমা হামলার অপরাধীদের সনাক্ত করতে পাকিস্তানের ব্যর্থতা। দূতাবাসের কাছে কাবুলের একটি কেন্দ্রীয় অঞ্চল বিধ্বস্ত করে বোমা হামলায় প্রায় দেড়শ মানুষ মারা গিয়েছিল। সাম্প্রতিক বছরগুলিতে সবচেয়ে মারাত্মক সন্ত্রাসবাদী হামলার মধ্যে গণ্য করা এই বোমা হামলাকে। সেই হামলা হাক্কানি নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত ছিল যা পাকিস্তান দ্বারা সমর্থিত ও পরিচালিত সন্ত্রাস বিরোধী সার্কিটগুলিতে পরিচিত ছিল।

আফগান জাতীয় সুরক্ষা অধিদপ্তর তখন সন্ত্রাসী হামলার জন্য প্রতিবেশী পাকিস্তান ভিত্তিক হাক্কানী নেটওয়ার্ককে দোষারোপ করেছিল এবং পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইকে এই হামলার পরিকল্পনায় সহায়তা করার জন্য অভিযুক্ত করেছিল। জার্মান কর্মকর্তারা উল্লেখ করেছেন যে ইসলামাবাদের তদন্ত শেষ হয়নি এবং তদন্তে পাকিস্তান কোনও সহায়তা করেছে। পাকিস্তানের এই সন্ত্রাসবাদী মনোভাবের কারণেই আন্তর্জাতিক মহলে কোনঠাসা হচ্ছে পাকিস্তান কিন্তু তবুও তারা সন্ত্রাসবাদকে মদত দিয়েই চলেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here